উন্নত জাতের লাউ উদ্ভাবন

স্বাদের লাউ, বানাইলো মোরে বৈরাগী। লাউ নিয়ে যদি বৈরাগী হতে না চান, তাহলে উন্নতজাতের লাউ চাষ করুণ। শীতকালে এই সবজি চাষ হয়ে থাকলেও বর্তমানে কৃষি বিজ্ঞানীদের কল্যাণে লাউ সারা বছর চাষ করা যায়। আলোক অসংবেদনশীল উন্নতজাতের উদ্ভাবনের ফলে লাউ এখন সারা বছরই বাজারে পাওয়া যাচ্ছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও পরিচালক (গবেষণা) প্রফেসর ড. এ কে এম আমিনুল ইসলাম সম্প্রতি বিইউ হাইব্রিড লাউ-১ ও বিইউ লাউ-১ নামে দুটি নতুন জাতের লাউ উদ্ভাবন করেছেন। এই উদ্ভাবক আশা করেন
লাউ দুটি ফসলের আধুনিক ও বাণিজ্যিক চাষাবাদের ক্ষেত্রে যুগান্তকারী পরিবর্তন নিয়ে আসবে।

ড. আমিনুল ইসলাম জানান, উচ্চফলনশীল এই জাত দুটির মধ্যে একটি হাইব্রিড এবং অন্যটি উন্মুক্ত পরাগায়িত (ওপি)। দুটিরই ফলনের তুলনায় অঙ্গজ বৃদ্ধি খুব কম- যা আধুনিক বা স্মার্ট কৃষির জন্য জুতসই। তাছাড়াও পুং ও স্ত্রী ফুলের অনুপাত কম হওয়ায় গাছে খাদ্যের যে জোগান দেয়া হয় তা অত্যন্ত মিতব্যয়িতার সঙ্গেই সরাসরি ফলোৎপাদনে ব্যবহার হয়। অর্থাৎ অন্যান্য প্রচলিত জাতের তুলনায় অপচয় কম হয় এবং ফল কম ঝরেপড়ে। হাইব্রিড জাতটি আলোক অসংবেদনশীল হওয়ায় সারা বছরই চাষযোগ্য, খেতে খুব সুস্বাদু এবং গ্রীষ্মকালীন চাষেও স্বাদের খুব একটা পরিবর্তন হয় না।

No Comments

Post A Comment